শিরোনাম:
ঢাকা, বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ১ আষাঢ় ১৪২৮

Natun Khabor
শুক্রবার ● ২১ মে ২০২১
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানবে সাইক্লোন ‘যশ’
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানবে সাইক্লোন ‘যশ’
৮১ বার পঠিত
শুক্রবার ● ২১ মে ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানবে সাইক্লোন ‘যশ’

নতুন খবর, আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:

---

আম্ফানের প্রায় একবছর পর এবার পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানতে যাচ্ছে সাইক্লোন যশ। আবহাওয়া দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, আগামী ২৬ মে সকালে যশ ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে পৌঁছাতে পারে। ওইদিন সন্ধ্যায় স্থলভাগে আছড়ে পড়বে যশ।

আলিপুর আবহাওয়া দফসূত্রে জানা গেছে, আগামী ২২ মে নিন্মচাপ অক্ষরেখা তৈরি হতে পারে। যা ২৪ মে সাইক্লোন যশ-এ পরিণত হবে। এই সাইক্লোনের নাম রাখা হয়েছে ওমানের পক্ষ থেকে ‘যশ’। যশের প্রভাবে ২৫ মে থেকে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বৃষ্টি শুরু হবে। পরবর্তীতে এই বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে। মঙ্গলবার থেকেই পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী জেলাগুলোতে অল্প থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত শুরু হবে।

আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, উত্তর আন্দামান সাগর ও সংলগ্ন পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরের উপর তৈরি হয়েছে একটি নিম্নচাপ। আগামী ২২ তারিখ এই নিম্নচাপ সাইক্লোনে পরিণত হতে চলেছে।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানায়, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও সংলগ্ন উত্তর আন্দামান সাগরের উপর ২২ তারিখ পর্যন্ত এটি একটি নিম্নচাপ রূপে অবস্থান করবে। এরপর এই নিম্নটাপটি যশ সাইক্লোনে পরিণত হয়ে ক্রমশ শক্তি বৃদ্ধি করবে। ক্রমশ শক্তি বৃদ্ধি করে উত্তর-পশ্চিম দিকে ও পশ্চিমবঙ্গের দিকে এগিয়ে আসবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে হাওয়া অফিস। আগামী ২৬ মে সন্ধ্যায় বাংলা-ওড়িশা উপকূলে আছড়ে পড়বে যশ। এর প্রভাব মেদিনীপুরসহ সুন্দরবনের উপরও পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

এদিকে যশের মোকাবিলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে। বুধবার সন্ধ্যায় এনিয়ে নবান্নে জরুরি বৈঠক হয়। বৈঠকে টেলিফোনে অংশ নেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও বৈঠকে ছিলেন স্বরাষ্ট্রসচিব, স্বাস্থ্যসচিবসহ শীর্ষ প্রশাসনিক কর্মকর্তা এবং কলকাতা ও রাজ্য পুলিশের কর্মকর্তারা। যোগ দেন সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, উপকূলরক্ষী বাহিনী ও আবহাওয়া দফতরের কর্তারাও।

গত বছরের আম্ফানের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে এবার কোনও রকম ঝুঁকি নিতে রাজি নয় পশ্চিমবঙ্গ সরকার। বৈঠকে দুই ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা প্রশাসনকে যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কলকাতাসহ লাগোয়া দুই ২৪ পরগনা ও পূর্ব মেদিনীপুরের উপকূলবর্তী এলাকা যেমন দিঘা, শঙ্করপুর, মন্দারমণি ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে বলে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরসহ সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকটি দফতরের কর্মীদের ছুটিও বাতিল করা হয়েছে। কলকাতার পৌরসভার বেশ কয়েকটি বিভাগের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। মৎসজীবীদের গভীর সমুদ্রে যাওয়াতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। আগামী ২৩ মে থেকে পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগর ও আন্দামান সাগরে ঘণ্টায় ৪৫-৬৫ কিমি বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। হাওয়ার সর্বোচ্চ বেগ হতে পারে ঘণ্টায় ৬৫ কিমি। ২৩ মে এর থেকে হাওয়ার বেগ আরও বাড়তে থাকবে। মৎস্যজীবীদের রবিবার সন্ধ্যার আগেই সমুদ্র থেকে ফিরে আসার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আন্দামান সাগর সংলগ্ন পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর উত্তাল থাকবে। আগামী ২৪ তারিখ থেকে ২৬ তারিখ পর্যন্ত সমুদ্রের ঢেউ-এর উচ্চতা বৃদ্ধি পাবে। সেই সময় সমুদ্রে ব্যাপক ঝোড়ো বাতাস বইবে।

যশের প্রভাবে আগামী ২৪, ২৫ ও ২৬ মে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত থাকবে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলীয় জেলাগুলোতে। সর্বোচ্চ ৮৫ কিলোমিটার পর্যন্ত বায়ুর গতিবেগ থাকার আশঙ্কা রয়েছে।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, আগামী ২৭ তারিখ পর্যন্ত ঝড়-বৃষ্টির পরিস্থিতি থাকবে। পশ্চিমবঙ্গের উপকূলের জেলাগুলোতে, ওড়িশায় ও বাংলাদেশ উপকূলে আগামী ২৭ তারিখ পর্যন্ত ঝোড়ো হাওয়ার দাপট চলবে।





আর্কাইভ

পরীমনির অভিযোগ খতিয়ে দেখছে পুলিশ
আমি আত্মহত্যা করলে সেটা হবে হত্যা : পরীমনি
পরীমনি জানালেন হত্যা ও ধর্ষণচেষ্টায় অভিযুক্তের নাম
পর্যটকদের মন কেড়েছে পাহাড়ি ঝর্ণা
গুনে শেষ করা যাবে না পেয়ারার উপকারিতা!
যে ফলে কমবে ওজন, সারবে ব্রন
যে জেলা যে শ্রেণিতে পড়েছে
বরগুনার মানুষের সুখে দু:খে পাশে থাকতে চাই