শিরোনাম:
ঢাকা, বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ১ আষাঢ় ১৪২৮

Natun Khabor
শুক্রবার ● ১৬ অক্টোবর ২০২০
প্রচ্ছদ » জাতীয় » ডা.সালমা সুলতানা পেলেন ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশনের সম্মাননা
প্রচ্ছদ » জাতীয় » ডা.সালমা সুলতানা পেলেন ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশনের সম্মাননা
১৪৮ বার পঠিত
শুক্রবার ● ১৬ অক্টোবর ২০২০
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

ডা.সালমা সুলতানা পেলেন ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশনের সম্মাননা

নতুন খবর ডেস্ক :

---

ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশনের সম্মাননা পেলেন বাংলাদেশের প্রথম বেসরকারি প্রাণিচিকৎসা কেন্দ্র ‘ মডেল লাইভস্টক ইনস্টিটিউটের’ প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক ডা. সালমা সুলতানা


মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশনের ওয়েবসাইটে । ২০২০ সালের ‘নরম্যান বোরলগ অ্যাওয়ার্ড ফর ফিল্ড রিসার্চ অ্যান্ড এপ্লিকেশন’ এর বিজয়ী হিসেবে ডা. সালমা সুলতানার নাম ঘোষণা করে। 


বাংলাদেশের প্রাণিসম্পদ উন্নয়নের লক্ষ্য নিয়ে ২০১৫ সালে থেকে ২৭ বছর বয়সে সালমা শুরু করেন তার প্রকল্প মডেল লাইভস্টক ইনস্টিটিউট ঢাকা।


ডা. সালমা সুলতানার ইনস্টিটিউটে ১৪ মাস মেয়াদী অ্যানিমেল হেলথ অ্যান্ড প্রোডাকশন ও পোলট্রি ফার্মিংকোর্স করানো হয়। মাঠপর্যায়ে প্রাণিচিকিৎসায় দক্ষ জনশক্তি তৈরি করতে এই প্রকল্প চালু করা হয়। 


খামারিদের প্রশিক্ষণ এবং সচেতন করতে কার্যক্রম চালানোর পাশাপাশি প্রাণীর চিকিৎসার জন্য হাসপাতালও পরিচালনা করে আসছে মডেল লাইভস্টক । 


ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশন বলছে, বাংলাদেশের গবাদিপশুর জন্য চিকিৎসা ও পরামর্শ সেবা পৌঁছে দিতে এবং হাজারো ক্ষুদ্র খামারিকে প্রশিক্ষিত করে তুলতে যে ব্যতিক্রমী মডেল সালমা গড়ে তুলেছেন, তার স্বীকৃতিতেই এবারের পুরস্কারের জন্য তাকে মনোনীত করা হয়েছে।


ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট বারবারা স্টিনসন বলেন, ডা. সালমা সুলতানার এই সাফল্য সহজে ধরা দেয়নি। পুরুষ প্রধান কর্মক্ষেত্রে সম্পদের যোগান যেখানে ছিল না বললেই চলে, সেখানে বহু বাধা পেরিয়ে এগোতে হয়েছে সুলতানাকে। কঠোর অধ্যবসায় আর উদ্ভাবনী ভাবনার প্রকাশ ঘটিয়ে তিনি নিজের দেশের খাদ্য নিরাপত্তার চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।


উল্লেখ্য, ২০১২ সালে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডক্টর অব ভেটেরিনারি মেডিসিন (ডিভিএম) বিষয়ে স্নাতক শেষ করে ভারতের তামিলনাড়ুতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেন সালমা সুলতানা। এরপর দেশে নিজের পুরনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফিরে ২০১৪ সালে ফার্মাকোলজিতে মাস্টার্স করেন।


মানুষের জন্য খাদ্য সহজলভ্য করতে এবং এর মান উন্নয়নে জন্য যারা কাজ করে যাচ্ছেন, তাদের সাফল্যের স্বীকৃতি হিসাবে ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশন প্রতিবছর এ পুরস্কার দেয়। ১৯৮৬ সালে নোবেলজয়ী নরম্যান বর্লুগ ‘বিশ্ব খাদ্য পুরস্কার’ প্রবর্তন করেন।





আর্কাইভ

পরীমনির অভিযোগ খতিয়ে দেখছে পুলিশ
আমি আত্মহত্যা করলে সেটা হবে হত্যা : পরীমনি
পরীমনি জানালেন হত্যা ও ধর্ষণচেষ্টায় অভিযুক্তের নাম
পর্যটকদের মন কেড়েছে পাহাড়ি ঝর্ণা
গুনে শেষ করা যাবে না পেয়ারার উপকারিতা!
যে ফলে কমবে ওজন, সারবে ব্রন
যে জেলা যে শ্রেণিতে পড়েছে
বরগুনার মানুষের সুখে দু:খে পাশে থাকতে চাই