শিরোনাম:
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১ আশ্বিন ১৪২৮

Natun Khabor
শনিবার ● ২৮ আগস্ট ২০২১
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » টিকা তৈরিতে ভরসা এই কাঁকড়ার নীল রক্ত, প্রতি লিটারের দাম ১১ লাখ টাকা
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » টিকা তৈরিতে ভরসা এই কাঁকড়ার নীল রক্ত, প্রতি লিটারের দাম ১১ লাখ টাকা
১৭২ বার পঠিত
শনিবার ● ২৮ আগস্ট ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

টিকা তৈরিতে ভরসা এই কাঁকড়ার নীল রক্ত, প্রতি লিটারের দাম ১১ লাখ টাকা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নতুন খবর:

---
কাঁকড়ার নামে পরিচিত হলেও মূলত বিছে ও মাকড়সার সঙ্গে এদের বেশি মিল। তবে সবচেয়ে বেশি অবাক করা বিষয় হচ্ছে এদের রক্ত। অশ্বক্ষুরাকৃতির কাঁকড়ার প্রতি লিটার রক্ত বিক্রি হয় ১১ লাখ টাকায়। অন্যান্য প্রাণীর মতো এদের রক্ত লাল নয়, নীল।
লাল না হয়ে নীল হলো কেন? বিজ্ঞানীরা জানান, মেরুদণ্ডী প্রাণীরা সাধারণত হিমোগ্লোবিনে লোহার উপস্থিতিকে কাজে লাগিয়ে রক্তে অক্সিজেন পরিবহণ করে থাকে। কিন্তু এদের ক্ষেত্রে ব্যাপারটি আলাদা। আর এই কাঁকড়ার নীল রক্তই বহুমূল্য।

এই রক্তের অসাধারণ ক্ষমতা বলে লিমিউলাস বা অশ্বক্ষুরাকৃতি কাঁকড়ারা যে কোনো ধরনের ব্যাকটেরিয়া এবং বিষাক্ত পদার্থ থেকে নিজেদের রক্ষা করতে পারে। তাই চিকিৎসাবিজ্ঞানে এদের গুরুত্ব অপরিসীম।
অশ্বক্ষুরের ন্যায় দেখতে উপবৃত্তাকার এই কাঁকড়াটি হল ‘হর্সসু ক্র্যাব’ বা ‘লিমুলাস’। কোথাও কোথাও এটি রাজ কাঁকড়া নামেও পরিচিত। তবে এটিকে কাঁকড়া বলা হলেও প্রজাতিগত দিক থেকে মাকড়সার সঙ্গে বেশি মিল রয়েছে এটির।

এরা প্রধানত অগভীর সমুদ্র ও নরম বালি বা কাদা সমৃদ্ধ সমুদ্রতলে বাস করে। কালেভদ্রে যৌনসঙ্গমের জন্য এদের ডাঙায় আসতে দেখা যায়। এদের এক জোড়া অক্ষিপুঞ্জের প্রতিটিতে এক হাজার চোখ রয়েছে। প্রজনন ঋতুতে এক একটি স্ত্রী অশ্বক্ষুরাকৃতি কাঁকড়া উপকূলীয় অগভীর পানির নিচে বালুতে গর্ত তৈরি করে প্রায় এক লাখেরও বেশি ডিম পাড়ে। ডিমের অধিকাংশই পাখি ও অন্যান্য প্রাণী খেয়ে ফেলে। ফলে অল্পসংখ্যক ডিম ফুটে বাচ্চা বের হয়।

চাষের কাজে সার হিসেবে এবং মাছ ধরার সময় টোপ হিসেবে এদের ব্যবহার আছে। সাম্প্রতিককালে জাপানে এদের সমুদ্রতটবর্তী বাসভূমি ধ্বংসের কারণে এবং উত্তর আমেরিকার পূর্ব উপকূলে অত্যধিক চাষের কারণে এদের সংখ্যা কমে গেছে। থাইল্যান্ডের সমুদ্রোপকূলে বসবাসকারী প্রজাতিগুলোর ডিমের মধ্যে সম্ভবত টেট্রোডোটক্সিন-এর অনুপ্রবেশ ঘটেছে।
আজ থেকে ৪৫ কোটি বছর আগে বিবর্তিত হয়ে এতদিন প্রায় অবিকৃত চেহারায় থেকে যাওয়ার জন্য এদের জীবন্ত জীবাশ্ম হিসেবে গণ্য করা হয়। এই কাঁকড়ার নীল রক্ত বহুমূল্যবান। এদের জীবন্ত জীবাশ্মও বলা হয়, কারণ ৪৪ কোটি ৫০ লাখ বছর আগেও পৃথিবীতে এদের অস্তিত্ব ছিল। ডাইনোসরের চেয়েও প্রায় ২০ কোটি বছর আগে পৃথিবীতে এসেছিল এই লিমুলাস। তাই এই জলজ প্রাণী বিজ্ঞানীদের কাছে আজও বিস্ময়।





আর্কাইভ

জানা গেলো অপূর্বর তৃতীয় স্ত্রীর পরিচয়, প্রকাশ্যে ছবি
বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ শহর: নেই চুরি-ডাকাতি, আছে পরিবেশ-স্বাস্থ্যগত সুরক্ষাও
উৎসুক জনতার ভিড়ের মাঝেই বিস্কুট খেতে খেতে বাসায় ঢুকলেন পরীমনি
চালের চা পানের উপকারিতা ও তৈরি পদ্ধতি
যৌথ সমঝোতায় বিদায় নিলেন উইলিয়ান
অর্জন ও পজিটিভ বাংলাদেশকে তুলে ধরতে নিউজপোর্টাল চালু করলো পুলিশ
স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত শিগগিরই: স্বাস্থ্যের ডিজি
ওসি প্রদীপের জামিন নামঞ্জুর, স্ত্রীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা