রাজধানীতে চারজনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার।।
রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় চারজনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। তারা হলো- যাত্রাবাড়ীতে নির্মাণ শ্রমিক রিয়াজ (২৫), সবুজবাগে সিএনজি অটোরিকশা চালক আব্দুল্লাহ (২৫), শ্যামপুরে আবুল কাশেম (৩৫) ও শাহজাহানপুরে ইসমাইল। শনিবার তাদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) মর্গে পাঠিয়েছে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ।
নিহত রিয়াজের সহকর্মী শাহাবুদ্দিন জানান, শনিবার বেলা ১১টার দিকে যাত্রাবাড়ী ধলপুর এলাকায় নির্মাণাধীন একটি ভবনের চার তলায় কাজ করছিলেন শ্রমিকরা। এ সময় একটি রড ভবনের পাশে থাকা বিদ্যুতের তার লাগে। এতে নুরু মিয়া ও রিয়াজ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। পরে দ্রুত তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ২টার দিকে রিয়াজের মৃত্যু হয়। তবে নিহত রিয়াজের পরিচয় জানাতে পারেননি সহকর্মী শাহাবুদ্দিন। ঢামেক পুলিশ বক্সের উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, দগ্ধ নুরুর অবস্থা আশঙ্কামুক্ত। তাকে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি রাখা হয়েছে।
সবুজবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জহুরুল ইসলাম জানান, শুক্রবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে সবুজবাগ বাসাবো বৌদ্ধমন্দির সংলগ্ন বিশ্বরোড এলাকায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়ক দ্বীপের সঙ্গে ধাক্কায় চালক আবদুল্লাহ গুরুতর আহত হন। তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার ভোর রাতে তার মৃত্যু হয়। নিহত আব্দুল্লাহ’র বাসা যাত্রাবাড়ী এলাকায়। তার বাবার নাম হজরত মাস্টার।
এদিকে পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, আবুল কাশেম শনিবার সকালে বংশাল এলাকায় একটি নির্মাণাধীন ভবনের দ্বিতীয় তলা থেকে পড়ে গুরুতর আহত হলে ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। কাশেম চাদপুর হাইমচর বাগরপুর গ্রামের মৃত আবদুল হামিদেও ছেলে। তিনি শ্যামপুর এলাকায় থাকতেন। অন্যদিকে শাহজাহানপুরে নিহত ইসমাইলের বড় ভাই জমির আলী জানান, ইসমাইল নারায়ণগঞ্জের আড়াই হাজার উপজেলার আবদুর রশিদের ছেলে। তিনি দক্ষিণ শাহাজানপুর রেলওয়ে কলোনির টেনা বস্তিতে পরিবার নিয়ে থাকতেন। স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে বিষপানে ইসমাইল আত্মহত্যা করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *