উপমহাদেশে বাংলাদেশে দুর্ঘটনা সবচেয়ে কম : শাজাহান খান

স্টাফ রিপোর্টার
নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, উপমহাদেশের মধ্যে বাংলাদেশে দুর্ঘটনা কম ঘটে থাকে। বিভিন্ন স্থানে রাস্তার বাঁকগুলো সরলীকরণ, ফুটওভার ব্রিজ, পাতালপথ নির্মাণের ফলে দুর্ঘটনা অনেকটা কমে এসেছে বলেও দাবি করেছেন মন্ত্রী।
আজ মঙ্গলবার রাজধানীর মতিঝিলে বিমান অফিস প্রাঙ্গণে মহান মে দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন আয়োজিত এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শাজাহান খান এ কথা বলেন।
মন্ত্রী জাল লাইসেন্স নিয়ে শ্রমিকদের গাড়ি না চালানোর আহ্বান জানান সমাবেশে।

শাজাহান খান বলেন, দুর্ঘটনা রোধে শ্রমিক-মালিক ও যাত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আরও সচেতন হতে হবে। চালকের অবহেলা ও অদক্ষতায় যেন দুর্ঘটনা না ঘটে, সে জন্য চালকদের আরও বেশি সাবধানতার সঙ্গে গাড়ি চালাতে হবে। গাড়িতে যাতে অদক্ষ চালক ও শ্রমিক কাজ করতে না পারেন, সে জন্য মালিকদের সতর্ক থাকতে হবে। গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোনে কথা বলা বন্ধ করতে হবে।
বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সহসভাপতি ছাদিকুর রহমান হিরুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ূন কবির খান ও মোখলেছুর রহমান।
শাজাহান খান বলেন, সড়ক পরিবহন সেক্টর একটি সেবামূলক সেক্টর। পরিবহন শ্রমিকেরা যাত্রীদের সেবা করে থাকেন।

নৌপরিবহনমন্ত্রী বলেন, ‘পরিবহন শ্রমিকেরা একেবারে নির্দোষ বা নিরপরাধী, সেটা বলব না। দুর্ঘটনার ফলে অনেক চালকের বিরুদ্ধে মামলা হয়। মামলার বিচারে যারা দোষী হয়, তাদের জন্য ফেডারেশন থেকে কোনো প্রতিবাদ করা হয় না। তবে নিরপরাধীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় বিচার হলে সেটার জন্য সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ জানানো হয়।’

মন্ত্রী বলেন, দুর্ঘটনা রোধকল্পে সড়ক পরিবহন সেক্টরকে আরও সাবধান হতে হবে। সড়ক পরিবহন আইন যুগোপযোগী করা হচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
সমাবেশ শেষে একটি শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি বিমান অফিস প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয়ে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম ঘুরে জিপিওর মোড় হয়ে মুক্তাঙ্গনে গিয়ে শেষ হয়।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *