শ্যালিকার লাশ আনতে গিয়ে প্রাণ গেল দুলাভাইয়ের

বগুড়া প্রতিনিধি।।
শ্যালিকার মৃতদেহ আনতে গিয়ে দুলাভাই মামুনুর রশিদ মামুনসহ (৪০) দুজন নিহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের ঘোগাবটতলা এলাকায় লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষে তাঁরা নিহত হন।

নিহতরা হলেন নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার আক্কেলপুর গ্রামের মামুনুর রশিদ মামুন (৪০) ও অজ্ঞাতপরিচয় অ্যাম্বুলেন্স চালক (৩৮)। এ ঘটনায় আহত হয়েছে দুজন।

বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবদুল আজিজ মণ্ডল জানান, ঘটনাস্থলেই দুজন নিহত হয়েছেন। ট্রাকটি আটক করেছে পুলিশ। আহতদের শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন ঘটনাস্থলে নিহত মামুনের স্ত্রী ফারজানা ববি (৩০) ও তাঁর মা রুনা লায়লা (৫৬)। রুনা লায়লার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

দুজনের মৃতদেহ শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

আহত ফারজানা ববির মামাতো ভাই জামাল উদ্দিন জানান, তাঁর ছোট বোন নিনা (২৮) কিডনিজনিত সমস্যায় ঢাকায় চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয়েছিল। সেখানে নিনা মারা যাওয়ার পর তাঁকে নিয়ে গ্রামের বাড়িতে অ্যাম্বুলেন্সযোগে নিয়ে আসার পথে দুর্ঘটনাটি ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ঘোগাবটতলা এলাকার বাসিন্দা উজ্জ্বল জানান, দুর্ঘটনার পরপরই আহত দুজন নারীসহ ফরজানা ববি দুই বছরের সন্তানকে নিয়ে তিনি দ্রুত বগুড়ার হাসপাতালে নিয়ে যান।

সরেজমিনে দেখা যায়, উজ্জ্বল দুই বছরের শিশুকে বুকে নিয়ে ঘুম পাড়ানোর চেষ্টা করছেন। কোলে নিয়ে ঘুরছেন। শিশুটিকে খাওয়ানোর চেষ্টা করছেন।

এদিকে, কিছুক্ষণ পর পর ফারজানা ববি হাসপাতাল বেডে চিৎকার করে স্বামী ও সন্তানকে খুঁজছেন। অসুস্থ থাকায় সন্তানকে তাঁর কোলে দেওয়া হচ্ছে না।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *