খালেদা জিয়ার কারাবাসে নতুন রাজনৈতিক ধারা : নোমান

স্টাফ রিপোর্টার ।।
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, তাঁর দলের বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া গত ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে যাওয়ার পর দেশে নতুন রাজনৈতিক ধারার সৃষ্টি হয়েছে। এই নতুন ধারা অবৈধ সরকারের পতন ঘটাবে, দেশে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করবে।

আজ শুক্রবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে আয়োজিত শিক্ষক সমাবেশে নোমান এসব কথা বলেন।

বিএনপি নেতা বলেন, ‘আমাদের আন্দোলন শুধু খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য নয়, দেশের সব জনগণের স্বার্থে। কারণ আমাদের মূল শক্তি দেশের জনগণ। তারা ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে।’

বিএনপি নেতা বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি, তারেক রহমান এ মুহূর্তে দেশে নিরাপদ নন। তাঁকে যদি দুরভিসন্ধিমূলক ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে হত্যার প্রচেষ্টা বা হত্যা করা হয়, সেটা অস্বাভাবিক কিছু হবে না। কাজেই এ অবস্থায় তারেক রহমান কেন দেশে আসবেন? আমি ব্যক্তিগতভাবে তাঁকে বলব, এ মুহূর্তে আপনি দেশে আসবেন না। দেশে না আসার ইতিহাস অনেক আছে বিভিন্ন দেশের বিপ্লবের ইতিহাস পড়লে বোঝা যায়।’

নোমান আরো বলেন, ‘পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সব বড় বড় নেতা তাঁদের দেশকে পরিবর্তন করার জন্য নিজেদের দেশে থাকতে পারে নাই। বিদেশে থেকে তাঁরা আন্দোলন পরিচালনা করেছেন এবং সফল হয়েছেন। তেমনই আমাদের নেতা তারেক রহম‌ান দেশের বাইরে থেকে এ আন্দোলন সফল করবেন এবং দেশে ফিরবেন। তবে এ মুহূর্তে আমি ব্যক্তিগতভাবেও বলব, তার দেশে আসার দরকার নাই।’

নোমান বলেন, ‘মিথ্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে কারাগারে নিক্ষেপ করার পর আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পাসপোর্ট নিয়ে বিভিন্ন ধরনের অপ্রচার করে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা হয়েছিল। কিন্তু ডিজি (পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক) সত্য কথা বলে দিয়েছেন, তিনি বলেছেন পাসপোর্টের সঙ্গে নাগরিকত্বের কোনো সম্পর্ক নেই।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি শিক্ষক নেতা আবদুর রহমানের সভাপতিত্বে শিক্ষক সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, ফরহাদ হালীম ডোনার, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম ভূঁইয়া, সহপ্রচার সম্পাদক কৃষিবিদ শামিমুর রহমান, শিক্ষক নেতা জাকির হোসেন, ‘দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের’ সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *