অলরাউন্ডার সাকিবের অনন্য কীর্তি

স্পোর্টস ডেস্ক
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) এবারের আসরে নতুন দলের হয়ে খেলছেন সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশ দলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক এবারের আসরে খেলছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে। এর আগে টানা ৭ বছর খেলেছেন বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খানের দল কলকাতা নাইট রাইডার্স থেকে।
চলতি আসর শুরুর আগে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের ঝুলিতে ছিল টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ২৯৪টি উইকেট। হায়দরাবাদের হয়ে এরইমধ্যে খেলে ফেলেছেন ৬টি ম্যাচ। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ওই ম্যাচে নিজের নামের প্রতি সম্মান দেখাতে না পারলেও আজ রোববার নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে তুলে নিয়েছেন একটি উইকেট।
আজকের ম্যাচে ৩ ওভার বল করে ১৬ রানের বিনিময়ে ১ উইকেট নিয়ে ৩১ বয়সী এই তারকা ছোট ফরম্যাটের ক্যারিয়ারের ৩০০ উইকেট তুলে নেন।
টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে ৪ হাজার রান এবং ৩০০ উইকেটের মালিক হলেন বাম-হাতি এই অলরাউন্ডার। তার সামনে শুধু আছেন ডোয়াইন ব্রাভো। প্রায় সাড়ে ৫ হাজার রান এবং ৪১৩টি উইকেট রয়েছে এই ক্যারিবীয় তারকার।
জাতীয় দলের জার্সি ও ফ্র্যাঞ্চাইজি টোয়েন্টি লিগে এখন পর্যন্ত খেলেছেন সাকিব মোট ২৫৮ ম্যাচ। বোলিং করেছেন ২৫২ ইনিংসে।
সাকিবের ৩০০ উইকেটের মাইলফলক ভাগ বসিয়েছে পাকিস্তানের কিংবদন্তি অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদির সঙ্গে। ২৭৪ ম্যাচে ৩০০ উইকেট নিয়ে চার নম্বরে ছিল এই স্পিনিং অলরাউন্ডার। ৩৭৮ ম্যাচে ৪১৪ উইকেট নিয়ে সবার উপরে আছেন ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার ব্রাভো। দ্বিতীয় স্থান লঙ্কান পেসার লাসিথ মালিঙ্গার দখলে। কিংবদন্তির ঝুলিতে আছে ২৫৬ ম্যাচে ৩৪৮ উইকেট।
অন্যদিকে তিন নম্বরে আরেক ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার সুনীল নারাইন। ২৭৬ ম্যাচ খেলে ডান-হাতি এই স্পিনার তুলে নিয়েছেন মোট ৩২৪ টি উইকেট।
সাকিব আর এক উইকেট পেলে আইপিএলে তার উইকেট সংখ্যা হবে ৫০।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *